স্মার্টফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে যে ভুলগুলো করা উচিত নয়

অনলাইন ডেস্ক



Media Image
কিছু বিষয় খেয়াল রাখলে ফোনের কার্যকারিতা ভালো থাকে


স্মার্টফোন ব্যবহারের সময় কিছু বিষয় খেয়াল রাখলে ফোনের কার্যকারিতা ভালো থাকে। কিছু বিষয় এড়িয়ে গেলে ফোনে অনেক সময় অনাকাঙ্ক্ষিত সমস্যা দেখা যেতে পারে।


স্মার্টফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে কিছু ভুল সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। 

কিছুদিন পরপর অ্যাপসগুলোতে বিভিন্ন আপডেট আসে। কিন্তু অনেকই আপডেট দিতে চান না, কারণ তারা মনে করেন আপডেট দিলে ব্যাটারি হেলথ কমে যাবে। কিন্তু এটা সঠিক নয়। প্রতিটি আপডেটে অ্যাপস কোম্পানি তাদের অ্যাপের নতুন ফিচার এবং নিরাপত্তার নতুন সংস্করণ নিয়ে আসে। এতে আপনার ফোনে ম্যালওয়্যার ভাইরাস প্রবেশে বাধা দেয় অ্যাপগুলো।  আপডেটের ফলে ফোনের ব্রাউজিং স্পিড বাড়ে এবং ফোন হ্যাং হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা সমাধান হয়ে থাকে। 


অন্য চার্জার ব্যবহার


আমরা অনেক সময় প্রয়োজনে অন্যের চার্জার দিয়ে ফোন চার্জ দেই। কিন্তু এতে নিজের অজান্তেই ফোনের ক্ষতি হতে পারে। ফোনবক্সের সঙ্গে যে চার্জার থাকে বা ফোন কোম্পানি যে চার্জার ব্যবহার করার পরামর্শ দেয় সেটিই আপনার ফোনের জন্য উপযুক্ত। 

অন্য চার্জার দিয়ে ফোন চার্জ দিলে ধীরে ধীরে ব্যাটারির আয়ু কমতে থাকে। এতে আপনার ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কমে যাবে এবং ফোনের পারফরম্যান্স ধীর হয়ে যেতে পারে। 

সারারাত ফোন চার্জিং 

রাতে ঘুমানোর সময় অনেকেই ফোন চার্জে দিয়ে ঘুমায়। কিন্তু এতে ফোনের ব্যাটারির ক্ষতি হতে পারে। যদিও এখন প্রায় সব ফোনে ব্যাটারি হেলথ নিয়ন্ত্রণ করার প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়। তবুও সারারাত ধরে ফোন চার্জে লাগিয়ে রাখার অভ্যাস একদমই ভালো নয়। কারণ সারারাত চার্জিংয়ের ফলে ফোনের ব্যাটারি গরম হয়ে যায়। 

ব্লুটুথ অন রাখা 

গান শোনার বা ফাইল ট্রান্সফার করার প্রয়োজনে আমরা ব্লুটুথ অন করি। কিন্তু কাজ শেষ হওয়ার পর ব্লুটুথ অফ করা হয় না অনেক সময়। এতে ফোনের ব্যাটারি ব্যাকআপ কমে যায়, কারণ ব্লুটুথ অন থাকলে ডিভাইসটি বারবার ব্লুটুথ সার্চিং করে। এছাড়াও ফোনের ব্লুটুথ অন থাকলে ফোন হ্যাকিংয়ের সম্ভাবনা থাকে। 

ফাইল ব্যাকআপ

অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস দুই অপারেটিং সিস্টেমেই ফাইল ব্যাকআপ করার অপশন আছে। কিন্তু আমরা ফাইল ব্যাকআপ করার বিষয়ে খুব উদাসীন থাকি। কিছুদিন পরপর ফাইল ব্যাকআপ নিতে হয়। এতে প্রয়োজনীয় ফাইল বা ছবি হারিয়ে যাওয়ার শঙ্কা কমে যায়। এতে স্মার্টফোনের স্টোরেজ ফাকা হয় এবং ফোনের স্পিড বেড়ে যায়।